আজগুবি কোন ভাষার শব্দ ? – Bangla MCQ


প্রশ্ন:  আজগুবি কোন ভাষার শব্দ ? 

প্রশ্ন:  আজগুবি শব্দটি কোন ভাষার শব্দ থেকে এসেছে ? 

ক.  ইংরেজি ও আরবি 

খ.  আরবি ও ফার্সি 

গ.  হিন্দি 

ঘ.  পর্তুগিজ

উত্তর :  (খ) আরবি ও ফার্সি শব্দ । 

ব্যাখ্যা:  

আজগুবি শব্দটি ” আরবি ও ফার্সি ” ভাষার শব্দ । 

“আজগুবি” শব্দটি বাংলা ভাষার একটি বিশেষ শব্দ যা প্রায়ই অবাস্তব, অবিশ্বাস্য, অথবা অত্যন্ত অদ্ভুত কিছু বোঝাতে ব্যবহৃত হয়। এই শব্দটির উৎপত্তি, এর ব্যবহার, এবং এর প্রাসঙ্গিকতা সম্পর্কে বিশদ আলোচনা করলে বাংলা ভাষার সমৃদ্ধি ও বৈচিত্র্য সম্পর্কে একটি পরিষ্কার ধারণা পাওয়া যায়।

 আজগুবি শব্দের উৎপত্তি:

“আজগুবি” শব্দটির উৎপত্তি সম্পর্কে স্পষ্ট কোনো তথ্য পাওয়া যায় না। তবে, এই শব্দটি সম্ভবত আরবি ভাষা থেকে এসেছে। আরবি ভাষায় “আজ” শব্দটির অর্থ “অদ্ভুত” এবং “গুবি” শব্দটি সম্ভবত গুজব অর্থে ব্যবহৃত হয়ে থাকতে পারে। দুটি শব্দ মিলে “আজগুবি” শব্দটি গঠিত হয়েছে, যা বাংলা ভাষায় অবাস্তব এবং অদ্ভুত কিছু বোঝাতে ব্যবহৃত হয়।

 শব্দের ব্যবহার:

বাংলা ভাষায় “আজগুবি” শব্দটি প্রায়শই কল্পনার অতিরঞ্জিত বা অবাস্তব কোনো গল্প, ঘটনা বা বিষয় বোঝাতে ব্যবহৃত হয়। উদাহরণস্বরূপ, যদি কেউ খুবই অদ্ভুত এবং অবিশ্বাস্য কোনো গল্প বলে, তবে আমরা সেটিকে “আজগুবি গল্প” বলে উল্লেখ করতে পারি। 

এছাড়াও, এই শব্দটি কোনো ব্যক্তির আচরণ বা কার্যকলাপ বোঝাতে ব্যবহার করা যেতে পারে, যা স্বাভাবিকের তুলনায় খুবই অদ্ভুত বা অস্বাভাবিক। যেমন: “তার আজগুবি আচরণ আমাদের সবাইকে বিস্মিত করেছে।”

 সাহিত্য এবং সংস্কৃতিতে আজগুবি:

বাংলা সাহিত্য এবং সংস্কৃতিতে “আজগুবি” শব্দটি বেশ প্রচলিত। সাহিত্যিকরা এই শব্দটি বিভিন্নভাবে ব্যবহার করে তাদের রচনায় বিশেষ অর্থ ও রস সৃষ্টি করেছেন। বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়, সত্যজিৎ রায়, এবং শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়ের মতো প্রখ্যাত সাহিত্যিকদের রচনায় “আজগুবি” শব্দের ব্যবহার পাওয়া যায়।

বিশেষ করে রূপকথা, উপকথা এবং কল্পকাহিনীতে এই শব্দটির ব্যবহার খুবই সাধারণ। ছোটদের জন্য লেখা গল্প ও কাহিনীগুলোতে “আজগুবি” শব্দটি প্রায়শই দেখা যায়, যা গল্পের আকর্ষণ বাড়ায় এবং শিশুদের কল্পনাশক্তি বাড়াতে সহায়ক।

 আজগুবি শব্দের সামাজিক প্রাসঙ্গিকতা:

সামাজিক পরিসরে “আজগুবি” শব্দটি বিশেষ গুরুত্ব বহন করে। এই শব্দটি ব্যবহার করে আমরা সমাজের বিভিন্ন অদ্ভুত এবং অবাস্তব বিষয়গুলিকে চিহ্নিত করতে পারি। এটি আমাদের ভাষার একটি মূল্যবান অংশ, যা আমাদের দৈনন্দিন কথোপকথনে ব্যঙ্গ, কৌতুক, এবং সমালোচনার মাধ্যমে ব্যবহৃত হয়।

 আজগুবি শব্দের গুরুত্ব:

“আজগুবি” শব্দটি বাংলা ভাষার একটি অনন্য শব্দ যা ভাষার সমৃদ্ধি এবং বৈচিত্র্যকে প্রতিফলিত করে। এটি কেবল একটি শব্দ নয়, বরং এটি আমাদের সংস্কৃতি, সাহিত্য এবং সামাজিক জীবনের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। এই শব্দটি ব্যবহার করে আমরা বিভিন্ন অবাস্তব এবং অদ্ভুত বিষয়গুলি সহজেই বোঝাতে পারি, যা ভাষার বহুমুখী ব্যবহারের উদাহরণ দেয়।

 উপসংহার:

“আজগুবি” শব্দটি বাংলা ভাষার একটি অমূল্য অংশ, যা আমাদের ভাষার বৈচিত্র্য এবং সমৃদ্ধির পরিচয় বহন করে। এর উৎপত্তি আরবি ভাষা থেকে হলেও, এটি বাংলা ভাষায় একটি স্বতন্ত্র এবং বিশেষ শব্দ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। “আজগুবি” শব্দটি আমাদের দৈনন্দিন কথোপকথনে, সাহিত্যিক রচনায় এবং সামাজিক জীবনে বিশেষ অর্থ এবং গুরুত্ব বহন করে। এই শব্দটি ভাষার বহুমুখী ব্যবহারের একটি উৎকৃষ্ট উদাহরণ, যা আমাদের ভাষার সৃজনশীলতা এবং সমৃদ্ধিকে আরও বাড়িয়ে তোলে।



Source link

Leave a Comment